করোনা সৈনিকের মত সমাজে অবতীর্ণ হয়েছেন মোহন শর্মা

BartaDarpan Desk

আলিপুরদুয়ারঃ করোনা মহামারী মোকাবেলায় সারা দেশে আমাদের ডাক্তার ,নার্স,স্ব‍্যাস্থকর্মীরা যেভাবে নিজের জীবন বাজি রেখে সৈনিকের মত সংগ্ৰাম করে যাচ্ছে ঠিক তাদের মতো করোনা সৈনিক রূপে সমাজকে করোনা মুক্ত করতে মোকাবেলায় সংগ্ৰাম চালিয়ে যাচ্ছেন আলিপুরদুয়ার জেলাপরিষদের মেণ্টর এবং শিলিগুড়ি তরাই ডুয়ার্স ডেভলোপমেণ্ট অথরিটি চেয়ারম্যান মোহন শর্মা। সমাজ থেকে করোনা মুক্ত করার জন‍্য জীবন বাজি রেখে তিনি সংগ্ৰাম চালিয়ে যাচ্ছেন । করোনা আবহে যখন সবাই গৃহবন্দী , করোনা ভয়ে অনেকে যখন জুজুথুবু তখন ৬৫ বছর বয়সী মোহন শর্মা আলিপুরদুয়ার জেলা করোনা মুক্ত করতে জেলার এক প্রান্ত থেকে অন‍্য প্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছে। আলিপুরদুয়ার জেলা চা বলয় , বনবস্তি,পাহাড় এসমস্ত নিয়ে গঠিত যেখানে বক্সা পাহাড়ের মত প্র‍ত‍্যন্ত প্র‍ত‍্যন্ত এলাকা আছে যেখানে জলদাপাড়া ও বক্সা ব‍্যাঘ্র প্রকল্পের জঙ্গলের মত ঘন জঙ্গল ঘেরা বনবস্তি রয়েছে এছাড়া ৬৪ টি চা বাগান রয়েছে আর এই সমস্ত এলাকায় বিভিন্ন জনজাতি বিভিন্ন ভাষাভাষী মানুষের বসবাস । আশ্চর্য বিষয় এই আলিপুরদুয়ার জেলা থেকে প্রচুর লোক ভিন রাজ‍্যে গিয়েছে কাজ করতে তারা সব ফিরছে তাদের কোথায় রাখবে তার জন‍্য প্রতিটি এলাকায় কোয়েরেণ্টাইন ঠিক করা তাছাড়া চা বলয়ের ও বনবস্তি বাসিন্দারা করোনা নিয়ে সচেতন না তাদের সচেতন করা এসব করতে দিন নেই রাত নেই জেলার এক প্রান্ত থেকে অন‍্য প্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছে মোহন বাবু । শুধু কি তাই আলিপুরদুয়ার জেলায় কোথায় মানুষ অভুক্ত রয়েছে কোথায় মানুষের সমস্যা হচ্ছে, শোনা মাত্র সেই এলাকায় দানসামগ্ৰী পাঠাচ্ছেন মোহন বাবু । ঝড়, বৃষ্টি দিন রাত কিছুই এনার কাছে বাধা হয়ে দাড়াচ্ছে না এমনকি বয়স ও তার কাছে কোনো বাধা হয়ে দাড়ায়নি তার কর্মকাণ্ড দেখে মনে হতেই পারে তিনি ৬৫ বর্ষীয় ‌। চা বলয়ের বাসিন্দাদের কখন চা বাগানে গিয়ে তিনি করোনা নিয়ে সচেতন করছেন কখন ও প্রত‍্যন্ত বনবস্তি এলাকায় বাসিন্দাদের সচেতন করছেন । কোথাও কোনো সমস‍্যা হলে সঙ্গে সঙ্গে দৌড়ে যাচ্ছেন তিনি । এমনকি রেড জোন থেকে আসা পরিযায়ী শ্রমিকদের কোয়ারান্টাইন সেণ্টারে কিছু সমস‍্যা হলে ও দৌড়ে যাচ্ছেন তিনি তাদের সাথে কথা বলতে তাদের সমস‍্যা শুনছেন এবং তা সমাধানের চেষ্টা করছেন । কোনো সময় গ্ৰাম পঞ্চায়েত দের সভা করছেন, কখন চা বলয়ের শ্রমিক নেতা দের নিয়ে সভা করছেন মোহন বাবু । দেশে লকডাউন জারী হবার পর সমস‍্যায় পড়েছিল গরীব জনগণ এবং এই লকডাউনের সময় গরীব জনগণের কথা চিন্তা ভাবনা করে মোহন বাবু চালু করেন বিনামূল্যে ওষুধ প্রদান পরিকল্পনা এবং জারী করেন ওয়াটস আপ নম্বর । সেই ওয়াটস আপ এ প্রেসক্রিপশন এর ছবি তুলে পাঠালেই ওষুধ চলে যাচ্ছে জনগণের দুয়ারে । এই লকডাউন চলাকালীন প্রায় সাত লক্ষ টাকার ওষুধ বণ্টণ করেছেন মোহন বাবু । এছাড়া আলিপুরদুয়ার জেলা করোনা মুক্ত করার জন‍্য উনার সম্প্রতি উদ‍্যোগ ট্রুনাট মেশিন নিজের ব‍্যাক্তিগত উদ‍্যোগে আলিপুরদুয়ার হাসপাতালে বসেছে একটি ট্রুনাট মেশিন এবং লতাবাড়ি গ্ৰামীণ হাসপাতালে বসছে ট্রুনাট মেশিন । এমনকি করোনা পরীক্ষার জন‍্য দুই হাজার চিপস এর উনি ব‍্যবস্থা করতে চলেছেন শীঘ্র।

এছাড়া আমাদের রাজ‍্যের শ্রমিক যারা ভিন রাজ‍্যে ও ভিন দেশে আটকে পড়েছিল তাদের ও ফিরিয়ে আনতে মোহনবাবুর উদ‍্যোগ অপরিসীম ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Next Post

ওষুধের দোকানে পাওয়া যাবে না করোনার দাওয়াই

ডেস্কঃ- ভারতের বাজারে চলে এসেছে মারণব্যাধি করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধকারী দুই ওষুধ। ওষুধ দুটি হল রেমডেসেভির ও ফ্যাভিপিরাভির। কিন্তু, আপনার নিকটবর্তী ওষুধের দোকান থেকে পাওয়া যাবে না এই ওষুধ। এই দুই ওষুধের ব্যবহার নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করল DCGI। জানিয়ে দিল, ওষুধের দোকানে মিলবে না এই ওষুধ। বরং প্রস্তুতকারী সংস্থা সরাসরি […]

You May Like

অনুগ্রহ করে আমাদের পোস্ট চুরি করার চেষ্টা করবেন না!!